চরফ্যাশনে চাল বিতরণে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার

0
49

দ্বীপকন্ঠ নিউজ ডেস্কঃ

ভোলার চরফ্যাশনের আহমদপুর ইউপিতে জেলেদের জন্য সরকারি বরাদ্দকৃত  ভিজিএফের চাল বিতরণে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও চাল বিক্রয়ের অভিযোগ উঠেছে। এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে ভিজিএফ চাল সহ ইউপি সদস্য কামাল হোসেনকে গ্রেফতার করে শুক্রবার জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা যায়,  উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন মাহমুদ  বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটায় আহমদপুর ১নং ওয়ার্ডের ইউনুস রাড়ি এর বসত ঘরের মধ্যে অভিযান পরিচালনা করে জেলেদের জন্য সরকারি বরাদ্দকৃত পাঁচ বস্তা ভিজিএফ চাল উদ্ধার করেন। এসময় ওই চাল রাখার দায়ে ইউপি সদস্য মো. কামাল হোসেনকে আটক  করেন। আটককৃত ইউপি সদস্য উপজেলার আহাম্মদপুর গ্রামের মহসিন সেরাং এর ছেলে।

আটক ইউপি মেম্বার কামালের বিরুদ্ধে উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক আকবর হোসেন বাদী হয়ে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ ধারায় দুলারহাট থানায় মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশ কামাল হোসেনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শুক্রবার বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করেছেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন মাহমুদ এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এই ঘটনায় নিয়মিত মামলা হয়েছে।

এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন জেলেদের ভিজিএফের প্রথম কিস্তি চাল উত্তোলনের সময় ইউপি চেয়ারম্যান ৩ টন চাল বিক্রয় করে জেলেদের চাল কম দেন । প্রকৃত অনেক জেলে চাল পাননি। তখন ইউপি মেম্বার ইব্রাহিম এর প্রতিবাদ জানান।

পরবর্তী  কিস্তির চাল দেওয়ার সময়ও অনেক প্রকৃত জেলে চাল পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। এছাড়া চাল প্রাপ্ত জেলেদের  চাল ওজনে কম দেয়া হয়েছে। ওই চাল আত্মসাৎ করেছেন।

প্রথম কিস্তির চাল বিক্রয়ের বিষয়টি স্বীকার করে ইউপি সদস্য ইব্রাহিম বলেন এবং আমি প্রতিবাদ জানালে চেয়ারম্যান কিছু চাল ক্রয় করে ওই চালের ঘাটতি পূরণ করেছেন।

এ প্রসঙ্গে আহমদপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম বলেন তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সত্য না। ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে স্বচ্ছতার ভিত্তিতে চাল বিতরণ করা হয়েছে। যদি কেউ অনিয়ম করে থাকে তার বিচার হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here