চরফ্যাসনে চাঁদার দাবীতে কৃষককে মারধর

0
21

 কে হাসান সাজু, চরফ্যাসন

ভোলা চরফ্যাসনের শশীভূষণ থানা এলাকায় চাঁদার দাবীতে জামাল হোসেন (৩৫) নামের এক কৃষককে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার রাতে চরকলমী ইউনিয়নের আঞ্জুরহাট বাজারে এঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতকে উদ্ধার করে রাতেই চরফ্যাসন হাসপাতালে ভর্তি করেন।এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত জামাল হোসেন জানিয়েছেন। আহত জামাল হোসেন চরকলমী ইউনিয়নের নাংলাপাতা গ্রামের আবদুল খালেক মৃদ্দার ছেলে।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে চরফ্যাসন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জামাল হোসেন অভিযোগ করেন,স্থানীয় চাঁদাবাজ আলকাস, নুরে আলম , আলমাস ও তারেক তার চাষকৃত জমির আবাদ বন্ধ করে দিয়ে তার কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবী করে আসছিলেন। সম্প্রতি সময়ে ওই চক্রকে ১০ হাজার টাকা দেয়া হয়। গত মঙ্গলবার তিনি স্থানীয় আঞ্জুরহাটে গেলে ওই চাঁদাবাজ চক্র বাজারের নিকটবর্তী ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন স্থানে তাকে আটকে তাদের দাবীকৃত বাকী ওই টাকা দাবী করেন। এসময়ে আমি তাদের দাবীকৃত বাকী ৪০ হাজার টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাকে লোহার রড দিয়ে এলোপথারী মারধর করে গুরুতর জখম করে। এবং তাদের দাবীকৃত ওই টাকা না দিলে জিবন নাশের হুমকি দেয়। তার ডাক চিৎকারের বাজারের ব্যবসায়ীরা ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায়।স্থানীয়রা গুরুতর আবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাতেই চরফ্যাসন হাসপাতালে ভর্তি করেন। এঘটনায় চিকিৎসা শেষে মামলা দায়ের করবেন বলে তিনি জানান।
স্থানীয়রা জানান, আলকাস ও আলমাসের বিরুদ্ধে চরফ্যাসন উপজেলার বিভিন্ন থানায় ডাকাতি , ধর্ষণ চাঁদাবাজী, চুরি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের একাধিক মামলা রয়েছে। তার এখনও ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামী। পুলিশের নাকের ডগায় ঘুরে বেড়ালেও তারা প্রভাবশালী হওয়া গ্রেফতার করছেন না।
অভিযুক্ত আলকাস জানান, চাঁদা দাবীর বিষয়টি সঠিক নয়। পাওনা টাকা নিয়ে জামালের সাথে কথার তর্কবিতর্ক হয়েছে।
শশীভূষণ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানানম, এঘটনায় কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি । অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here