চরফ্যাসনে মাদ্রাসা ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৩ বছর ধর্ষণ, মামলা দায়ের

0
43

কে হাসান সাজু, চরফ্যাসন

ভোলা চরফ্যাসনের আসলামপুর ইউনিয়নে মাদ্রাসা ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁেদ ফেলে বিয়ের প্রলোভনে তিন বছর লাগাতার ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ধর্ষণের শিকার ভিক্টিম ছাত্রী বাদী হয়ে আসলাপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মোঃ মঞ্জু নামের এক যুবককে আসামী করে চরফ্যাসন থানায় মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্ত ধর্ষক মোঃ মঞ্জু একই গ্রামের মোঃ রত্তন চকিদারের ছেলে। বুধবার সন্ধ্যায় ভিক্টিম ছাত্রীর বসত ঘরের রান্না ঘরে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও ভিক্টিম জানায়, প্রতিবেশী যুবক মোঃ মঞ্জু প্রায় সময় মাদ্রাসায় আসা-যাওয়ার পথে তাকে প্রেম প্রস্তব দিয়ে আসছিলেন।কৌশলে তার বাবার মোবাইল নম্বার নিয়ে ওই নম্বরে ফোন দিয়ে তাকে প্রেম প্রস্তাব ও বিয়ে আস্বাস দিতেন। বিয়ের মিথ্যা আস্বাসে তার প্রেম প্রনয় গড়ে উঠে। প্রেমের সুত্র ধরে যুবক মোঃ মঞ্জু আমার পরিবারের সদস্যদের অগোচরে রাতের আধারে আমার বাড়িতে আসতো । এবং বিয়ের ছলনায় ফেলে তিন বছর যাবত শারিরিক মেলামেশা করতে বাধ্য করতেন। ঘটনার সময় বুধবার সন্ধ্যায় আমার বৃদ্ধ অসুস্ত মা ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন । সন্ধ্যায় যুবক মঞ্জু আমাকে বিয়ে করবে বলে পরিবারে সাথে কথা বলার অযুহাতে আমার বাড়িতে আসে। এসময় মোঃ মঞ্জু আমাকে ফের শারিরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেয়।তার প্রস্তাবে রাজি না হলে সে আমাকে আমার বসত ঘরের রান্না ঘরের মেঝেতে ফেলে জোরপুর্বক ধর্ষণ করেন। আমার চিৎকারে আমার মা এবং প্রতিবেশিরা ছুটে এলে ধর্ষক মঞ্জু পালিয়ে যায়।
চরফ্যাসন থানার ওসি মনির হোসেন মিয়া জানান, ভিক্টিম ছাত্রীকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here