চরফ্যাসনে মামলা তুলে নিতে আসামীর হুমকী , পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাদিনী

0
127

কে হাসান সাজু, চরফ্যাসন

ভোলা চরফ্যাসনে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে গৃহবধুর দায়েরকৃত মামলা তুলে নিতে ভিক্টিমসহ তার পরিবারকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামলা তুলে না নিলে ভিক্টিমকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দিচ্ছে আসামী আবুল খায়ের (আবু)ও তার পরিবার। আসামীদের অব্যহত হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভিক্টিম গৃহবধু ঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
গত ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় ভিক্টিম গৃহবধুর বসত ঘরে ধর্ষণ চেষ্টার এঘটনার পর গত ৪ নভেম্বর ভিক্টিম গৃহবধু বাদী হয়ে আসলামপুর ইউনিয়নের খোদেজাবাগ গ্রামের মৃতঃ আমিনুল ইসলামের ছেলে আবুল খায়েরকে আসামী করে ভোলার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটি দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত ভিক্টিমের দায়েরকৃত মামলাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য চরফ্যাসন থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদকর্মীদের কাছে ভুক্তভোগি ভিক্টিম গৃহবধু অভিযোগ করেন, আমার স্বামী মানুষিক বিকারগ্রস্ত। অসুস্থ স্বামী এবং পুত্র সন্তানকে নিয়ে আমি বাড়িতে থাকি। স্বামীর অসুস্থার সুযোগে প্রতিবেশি আবুল খায়ের আমাকে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। (৩০অক্টোবর শুক্রবার) ঘটনার রাতে স্বামী ও সন্তান বাড়িতে ছিলেন না। এ সুযোগে প্রতিবেশী আবুল খায়ের আমার বসত ঘরে ঢুকে ইচ্ছের বিরুদ্ধে আমাকে জোরপুর্বক ধর্ষনের চেষ্টা করেন। ধর্ষণ চেষ্টারকারীর কবল থেকে বাঁচতে চিৎকার দিলে আমাকে মারধর করে গুরুতর জখম করে। প্রতিবেশিরা ছুটে এসে আমাকে উদ্ধার করে রাতেই চরফ্যাসন হাসপাতালে ভর্তি করান।চিকিৎসা শেষে গত ৩ নভেম্বর চরফ্যাসন থানায় মামলা করতে গেলে থানা পুলিশ মামলা না নেয়ায় আদালতে মামলা দায়ের করি। মামলা দায়েরের পর আসামী ও তার পরিবার মামলা তুলে নিতে চাপ দিতে থাকেন এবং মামলা তুলে না নিলে মাদক মামলায় আমাকে ফাঁসানোর হুমকি দেন। আসামীদের ভয়ে আমি পালিয়ে বেড়াচ্ছি। আসামীর হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় আছি আমি এবং আমার পরিবার।
চরফ্যাসন থানার ওসি মনির হোসেন মিয়া জানান, গৃহবধুর আদালতে দায়ের করা মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here