বরিশালে করোনা আক্রান্ত বলে বৃদ্ধা মাকে ফেলে দিলো মন্দিরে

0
13

দ্বীপকন্ঠ নিউজ ডেস্কঃ

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বারপাইকা গ্রামে খাবার চাওয়ার অপরাধে এক বৃদ্ধকে (৯৫) শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে ছেলে ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে। গত সোমবার দুপুরে ওই নির্যাতনে আহত গেনোদা বেপারী ওই এলাকার প্রয়াত সূর্য্যকান্ত বেপারীর স্ত্রী।

এদিকে খাবারের জন্য বৃদ্ধাকে শারীরিক নির্যাতনের খবর পেয়ে ওই বৃদ্ধার জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী, ওষুধ এবং খাদ্য সহায়তা পাঠিয়েছেন আগৈলঝাড়া থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন। একই সাথে অভিযুক্ত ছেলে ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন ওসি।

ওই গ্রামের বাসিন্দারা জানান, বৃদ্ধা গেনোদা বেপারীর শরীরে করোনা ভাইরাসর জীবানু থাকার আশংকায় গত ২ মাস ধরে তাকে বসত ঘরে না রেখে ঘরের বাইরে একটি মন্দিরের সামনে রাখা হয়। খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় সাংবাদিকদের কাছে নির্যাতনের শিকার ওই বৃদ্ধা অভিযোগ করেন, গত সোমবার দুপুরে খাবার চেয়ে না পেয়ে তার নিজের নামে উত্তোলনকৃত বয়স্ক ভাতার টাকা চান ছেলের কাছে। এতে তার ছেলে জগদীশ বেপারী ও ছেলের স্ত্রী শিখা রানী ক্ষিপ্ত হয়। একপর্যায়ে ছেলে ও তার স্ত্রী মিলে তাকে পিটিয়ে রক্তাত্ব জখম করে।
প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় বাসিন্দা বিভূতি মন্ডল ও বাসুদেব সরকার জানান, নির্যাতনের সময় বৃদ্ধার চিৎকারে তারা এগিয়ে গেলে জগদীশের স্ত্রী শিখা রানী তাদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে এবং বিষয়টি কাউকে জানালে তাদের নামে মামলা করার হুমকি দেয়।

অভিযুক্ত জগদীশ বেপারী স্থানীয় সাংবাদিকদের প্রশ্নে ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, বিষয়টি তাদের পারিবারিক। এখানে কাউকে নাক গলাতে হবে না।

আগৈলঝাড়া থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন জানান, সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক বৃদ্ধাকে নির্যাতনের ছবি দেখে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছেন। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

এদিকে অনাহারী ওই বৃদ্ধার জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্য ও ওষুধ সামগ্রী এবং কিছু ফল কিনে পাঠিয়েছেন বলে জানান ওসি মো. আফজাল হোসেন।
আগৈলঝাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে দাবি করেন। তবে এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here