বরিশালে নারীর লাশ ড্রামে ঢুকিয়ে গুমের চেষ্টা । গ্রেপ্তার -১

0
9

দ্বীপকন্ঠ নিউজ ডেস্কঃ

বরিশালে এক নারীকে হত্যার পর ড্রামে ঢুকিয়ে লাশ গুম চেষ্টার ঘটনার মূলহোতা আব্দুল খালেক হাওলাদারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। হত্যাকাণ্ডের প্রায় এক মাস পর তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় বৃহস্পতিবার (২৫ ডিসেম্বর) রাত ৩টার দিকে বাবুগঞ্জ উপজেলার হিজলতলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। খালেক গৌরনদী উপজেলার বাসিন্দা এবং বরিশাল নগরীর কাশিপুরে নির্মাণাধীন একটি ভবনের কেয়ারটেকার।

নিহত সাবিনা ওই উপজেলার পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দিয়াসুর এলাকার কাতার প্রবাসী শফিকুল ইসলামের স্ত্রী। তিন সন্তানের জননী সাবিনা পার্শ্ববর্তী মুলাদী উপজেলার নাজিরপুর এলাকার সাহেব আলীর মেয়ে। নারায়নগঞ্জের ফতুল্লা এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। কাতার প্রবাসী স্বামীর সহায়তায় বিদেশে লোক পাঠাতেন সাবিনা।

শুক্রবার বেলা ১২টায় নগরীর রূপাতলীতে পিবিআই কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবির বলেন, গত ২০ নভেম্বর রাত ৮টার দিকে গৌরনদীর ভূরঘাটা বাসস্ট্যান্ডে একটি বাসের ছাদ থেকে ব্যারেলের মধ্য বোরখা পরিহিত অজ্ঞত পরিচয়ের নারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই দিনই নারীর পরিচয় উদ্ধার করা সম্ভব হলেও হত্যাকারীর পরিচয় উদঘাটন কিংবা তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশের হাতে আটক খুনী পুলিশ সুপার আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি খালেক স্বীকার করেছে বিদেশ নেওয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা নিয়েছিল সাবিনা। পরে বিদেশ না পাঠানোয় টাকা ফেরত চান।কিন্তু টাকা ফেরত না দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে গত ২০ নভেম্বর সাবিনাকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কাশিপুরে ডেকে আনেন। টাকা ফেরত দেওয়া নিয়ে বাদানুবাদের এক পর্যায়ে রড দিয়ে তার মাথায় আঘাত করেন এই হত্যাকাণ্ড ঘটান। এ ঘটনায় গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে খালেককে গৌরনদী থানায় সোপর্দ করা হবে।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here