বোরহানউদ্দিন পৌর নির্বাচন । সমর্থন আদায় ও গণ সংযোগে ব্যস্ত প্রার্থীরা

0
24

 এম এ অন্তর হাওলাদার, বোরহানউদ্দিন 

ভোলা বোরহানউদ্দিন পৌরসভার নির্বাচনে ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীরা। সকাল হতে রাত অবধি প্রার্থীরা পদচারনায় মুখরিত রাখছেন পৌর এলাকা। প্রার্থীদের পোষ্টালে পোষ্টালে ছেয়ে গেছে পৌর এলাকা। এদিকে আ’লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে গণ সংযোগ ও উঠান বৈঠক করতে দেখা গেলেও বিএনপি’র প্রার্থী অনেকটা কৌশলে প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছেন।
সূত্রমতে জানা গেছে, প্রথম শ্রেণীর এ পৌরসভায় মোট ভোটার ১০ হাজার ৭২০ জন। পুরুষ ৪ হাজার ৩৬০ জন ও মহিলা ৪ হাজার ৫০ জন রয়েছে। আর আগামী ৩০ জানুয়ারী এ পৌরসভার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে মেয়র পদে আ’লীগের মনোনীত প্রতিক নৌকা নিয়ে সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদের ভাগিনা রফিকুল ইসলাম গত দুই মেয়াদে ১০ বছর দায়িত্ব পালন করে পৌরসভার উন্নয়ন ও তার ব্যক্তিগত কর্মকান্ডে এ পৌরবাসীকে মুগ্ধ করেন। তিনি ১১ জানুয়ারী নৌকা প্রতিক বরাদ্দের পর হতে সকাল হতে রাত অবধি গণ সংযোগ ও উঠান বৈঠক করে জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা মার্কা ভোট প্রার্থনা ও সমর্থন কামনা করেন। তিনি এসময় তার দায়িত্ব পালনকালে পৌর সভার উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরছেন এবং আগামীতে এ উন্নয়ন অব্যাহত রাখার বিভিন্ন প্রতিশ্রæতি দিচ্ছেন। অন্যদিকে ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী মনিরুজ্জামান কবির মাঠ পর্যায় গন সংযোগ ও উঠান বৈঠকে তেমন একটা দেখা না গেলেও মাইকিং করে ভোট চালিয়ে যাচ্ছেন এবং পৌরসভার অলিগলিতে তার পোষ্টাল টানানো রয়েছে। যদি বিএনপি’র দাবী যে কোন সংঘাত এড়াতে অনেকটা কৌশলে তারা ওয়ার্ড ভিত্তিক গণ সংযোগ করে প্রচার-প্রচারনা করছেন। এছাড়া মেয়ার পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুস সালাম নারিকেল গাছ প্রতিক নিয়ে কৌশলে ভোটারদের সাথে গণ সংযোগ করছেন। এছাড়া দুপুর হতে রাত অবধি মাইকিং করে নিজেদের ভোট প্রার্থনা করছেন কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীরা। তারাও ভোটারদের মনকারতে প্রতিশ্রæতি দিয়ে গণ সংযোগ ও উঠান বৈঠক করছেন। সব চেয়ে পৌর ৬নং ওয়ার্ডে ৬ জন কাউন্সিলর প্রার্থী থাকায় ভোটারদের কদর বাড়ছে। সবাই সমান ভাবে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। এদিকে পৌরসভার রাস্তার অলিগলি ছেয়ে গেছে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোষ্টালে পোষ্টালে। সুমধূর গানের সাথে তাল মিলিয়ে মাইকিং করে পৌর শহরকে মুখরিত রাখছেন প্রার্থীরা।
স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আব্দুস সালাম বলেন, আমি ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছি। তারা যদি আমাকে মেয়র নির্বাচিত করেন তাহলে এ পৌরবাসীর উন্নয়নে দিন-রাত কাজ করবো।
বিএনপি’র মনোননীত মেয়র প্রার্থী মনিরুজ্জামান কবির বলেন, গণতন্ত্র পূণরুদ্ধারের লক্ষে আমরা এ নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেছি। ভোটাররা যদি ঠিকমত ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোট দিতে পারে তাহলে আমাদের জয় নিশ্চিত। আমি যদি মেয়র হতে পারি তাহলে এ পৌরসভাকে অবকাঠামো উন্নয়ন সহ দৃষ্টি নন্দন পৌরসভায় রুপান্তরিত করবো। তিনি আরোও বলেন, আমরা কৌশল করে বাড়ী বাড়ী গিয়ে গণ সংযোগ করছি।
আ’লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম বলেন, পৌর নির্বাচন খুবই উৎসব মুখোর পরিবেশ বিরাজ করছে। সবাই সমান ভাবে নির্বাচনী কাজ করার পরিবেশ রয়েছে। তবে মাঠ পর্যায়ে গণ সংযোগ ও উঠান বৈঠক করতে দেখা যায় না বিএনপি’র মেয়র প্রার্থীকে। তিনি আরোও বলেন, প্রতিক বরাদ্দের পর থেকে আমি প্রতিদিন গণ সংযোগ ও উঠান বৈঠকে ব্যস্ত সময় পার করছি। ভোটারদেরও ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। তিনি আরোও বলেন, পৌরবাসী যদি তাদের মূল্যমান ভোটে তৃতীয় বারের মত আমাকে মেয়র নির্বাচিত করেন তাহলে অসামাপ্ত কাজ সহ পৌর সভাকে একটি মডেল পৌরসভায় রুপান্তরিত করবো ইনশাআল্লাহ।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here