ভোলায় ‘জিনের বাদশা’ ভবনের ছাদ থেকে পড়ে নিহত

0
59

দ্বীপকন্ঠ নিউজ ডেস্কঃ

ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ছাদ থেকে পড়ে নিহত হলেন ভোলার বোরহানউদ্দিনের আলোচিত জিনের বাদশার গডফাদার আজাদ হাওলাদার। দেশব্যাপী জিনের বাদশা সেজে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ আছে এই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। আজাদ হাওলাদার (৩৭) সোমবার ভোলার কুঞ্জেরহাটে নিজ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ছাদ থেকে পড়ে মারা গেছেন। তার মৃত্যুর পর আজাদের দীর্ঘদিনের নানা অপকর্মের কাহিনী ছিল ওই এলাকার প্রধান আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। ছাদের কার্নিশ থেকে তার পড়ে যাওয়াও ছিল রহস্যজনক।

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুঞ্জেরহাট বাজারে পিতার নামে গড়ে তোলা তিন তলাবিশিষ্ট বজলু হাওলাদার সুপার মার্কেটের মালিকও ছিলেন আজাদ। ওই ভবনের নিচতলায় দোকানপাট, দ্বিতীয়তলায় ব্যাংক, তৃতীয়তলায় নিজ আবাস। ওই ভবনের ছাদের কার্নিশে পা রাখতে গিয়ে সকাল ৯টায় তিনি পড়ে যান বলে জানান বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল আমিন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, গত ২০ বছর ধরেই আজাদ জিনের বাদশা সেজে প্রতারক চক্র গড়ে তোলে। তার ওই বাহিনীর সদস্য রয়েছে কমপক্ষে তিন হাজার। একই সঙ্গে ওই চক্রের রয়েছে ইয়াবা ব্যবসা। পুলিশ ও ডিবি পুলিশের হাতে ১৫ বার আটক হন আজাদ হাওলাদার। ৪ মাস আগেও তিনি ইয়াবা চালানসহ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন।

বোরহানউদ্দিন থানার ওসি জানান, দুই মাস আগে তার বাড়ির ছাদ থেকে একটি লাশ পাওয়া যায়। ওই সময় আজাদ ও তার স্ত্রীকে পুলিশ আটক করেছিল। এছাড়া মাদকসহ জিনের প্রতারণার বেশ কয়েকটি মামলায় তিনি গ্রেপ্তার ও জেল খাটেন।

বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া চরঢোস গ্রামের মৃত বজলু হাওলাদারের ছেলে আজাদ হাওলাদার এক সময় বিএনপির ক্যাডার হিসেবেও পরিচিত ছিলেন। ওই আমল থেকেই বড় ভাইয়ের হাত ধরে জিনের বাদশা সেজে প্রতারণা ব্যবসায় নামেন আজাদ। গড়ে তোলেন দেশব্যাপী নেটওয়ার্ক। এমনকি জিনের কণ্ঠ অনুকরণ, মানুষকে প্রলুব্ধ করার কৌশল রপ্ত করার প্রশিক্ষণ সেন্টার রয়েছে। ওই সেন্টারের প্রধানও ছিলেন আজাদ।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here