লালমোহনে আদালতের নিষেধাজ্ঞা বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জমি দখল ও ধান কর্তনের অভিযোগ

0
119

আরশাদ মামুন, লালমোহন 

ভোলার লালমোহন ফরাজগঞ্জ ইউপি সংরক্ষিত সদস্যা নাজমা বেগমের স্বামী আফাজ উদ্দিন ক্ষমতার দাপটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে জোর পূর্বক জমি দখল ও নিরীহ কৃষকের ধান কেটে নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন মুরাদ আফাজ উদ্দিনকে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য না করার কথা বললেও তা মানতে নারাজ আফাজ উদ্দিন।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,  ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড এলাকার সাদক পাটোয়ারী বাড়ির হাসেম মাষ্টার গংদের ১২ একর ২৭ শতাংশ জমি জোর পূর্বক দখলের পায়তারা চালাচ্ছেন সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সদস্যা নাজমা বেগমের স্বামী আফাজ উদ্দিন। মুলত স্ত্রী ইউপি সদস্য হওয়ার পর থেকে এলাকায় সন্ত্রাসী বাহিনী তৈরি করে এহেন অপরাধ নেই যা ওই বাহিনী করে না। ক্ষমতার অপব্যবহার করে সম্প্রতি নিরীহ কৃষক হাসেম মাষ্টারের জমির ধান জোর পূর্বক কেটে নেওয়ার প্রকাশ্য হুমকি প্রদানসহ ধান কর্তনের পায়তারা চালাচ্ছেন। অথচ ওই জমির বিপরীতে বিজ্ঞ আদালত হাসেম মাষ্টার গংদের পক্ষে স্থিতিশীল পরিস্থিতি বজায় রাখতে আদেশ প্রদান করেছেন। কিন্তু ওই আদেশ অমান্য করে স্ত্রীর ক্ষমতার দাপটে সন্ত্রাসী আফাজ উদ্দিন ও তার বাহিনী ধান কর্তনের প্রকাশ্য হুমকি প্রদানসহ অপচেষ্টা শুরু করেছেন। এমন অভিযোগ পেয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন মুরাদ আফাজ উদ্দিনকে আদালতের আদেশ উপেক্ষা না করার কথা বলেন। কিন্তু বেপরোয়া আফাজ তাও মানতে নারাজ জানিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন মুরাদ বলেন,  বর্তমান পরিষদের সদস্যা নাজমা বেগমের স্বামী আফাজ উদ্দিন এর বিরুদ্ধে হাসেম মাষ্টার গংদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত আফাজ উদ্দিনকে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা না করতে নির্দেশ প্রদান করি। শুনেছি আদালত কিংবা কারো কোন নিষেধ না মেনে দশটি হত্যার ঘটনা ঘটিয়ে হলেও সে ধান কর্তন করবেন। এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্যা নাজমা ও স্বামী আফাজ উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও মোবাইল বন্ধ থাকায় তা সম্ভব হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here