কলাপাড়ায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন।

0
1

রিমন সিকদার, কলাপাড়া 

কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর ইউনিয়নের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল মালেক আকন্দ নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট করতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী ফজলু গাজীকে ষড়যন্ত্রকারী দায়ী করেছেন। ফজলু গাজী অর্থের বিনিময় সকলকে ম্যানেজ করার কথা প্রকাশ্যে ঘোষণা দিচ্ছেন। বহিরাগতদের ভাড়ায় এনে জড়ো করছেন। নৌকা প্রতীকের কর্মীদের প্রকাশ্যে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এমনসব অভিযোগ এনে শনিবার বেলা ১১টায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন আব্দুল মালেক আকন্দ। তিনি আরও বলেন, ‘ শুক্রবার রাতে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বন্দুক পিস্তল কারা রেখেছে তা তদন্ত করা প্রয়োজন। ওখানে একটি মোটরসাইকেল পাওয়া গেছে। ওই মোটরসাইকেলটি কার তা বের করলে আসল রহস্য বের হয়ে আসবে।’ তিনি র‌্যাবের কাছেও সুষ্ঠু বিচার চেয়েছেন। আগামী ২০ অক্টোবর মহিপুরের নির্বাচনকে সামনে রেখে সুষ্ঠু পরিবেশ নস্যাতকারী হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে দায়ী করেছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও মূলত হাজী ফজলু গাজী বিএনপির ইউনিয়ন সিনিয়র সহ-সভাপতি। সভাপতি মারা গেছেন, এখন তিনিই বিএনপির বড় নেতা। আসলে কৌশলে স্বতন্ত্র প্রতীক নিয়ে এমন তালবাহানা শুরু করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করা হয়। সন্ত্রাসীরা তার সঙ্গে থাকে। মালেক আকন্দ এসব অভিযোগ করে দাবি করেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের নৌকার বিজয় নিশ্চিত জেনে নির্বাচন ভন্ডুল করার যতো ধরনের ষড়যন্ত্র রয়েছে তা করতে উঠেপড়ে লেগেছে। তিনি প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোতালেব তালুকদার, সহসভাপতি অধ্যক্ষ সৈয়দ নাসির উদ্দিন, অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম বিশ^াস, পৌর মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার, অধ্যক্ষ শহিদুল আলম, দিদার উদ্দিন আহমেদ মাসুম উপস্থিত ছিলেন। এব্যাপারে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো: ফজলু গাজী বলেন, ’শুক্রবার রাতে মালেক আকন্দ’র মাছের গদির দোতলা থেকে র‌্যাব অবৈধ উদ্ধার করেছে। তাদের এধরনের আরও রেকর্ড আছে। তবে তার বিরুদ্ধে মালেক আকন্দ’র করা অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here