কলাপাড়ায় জনমত জরিপে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মেম্বার প্রার্থী আফজাল হোসেন

0
47

কলাপাড়া প্রতিনিধি:

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তরুণ মেম্বার প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের আলহাজ্ব মো. আমজাদ হোসেন ফকিরের সুযোগ্য সন্তান বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. আফজাল হোসেন। উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ডে সম্ভাব্য মেম্বার হিসেবে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন। কলাপাড়া উপজেলার সর্ববৃহৎ ১নং ওয়ার্ডের নীলগঞ্জ, সুলতানগঞ্জ, নবাবগঞ্জ, সলিমপুর গ্রামের ৩ হাজার আটশত ভোটারের বসবাস। জনমত জরিপে রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন।
রোববার (২১ নভেম্বর) শত শত নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে নীলগঞ্জ আবাসনে গণসংযোগ করেন আফজাল হোসেন। পরে আবাসনের মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন।
ইতোমধ্যে এলাকায় সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ড চালানোয় স্থানীয়দের মুখে মুখে এখন তার নাম। নির্বাচনী এলাকা ছাড়াও বিভিন্ন গ্রামে মসজিদ-মাদরাসার কিছু উন্নয়নসহ সমাজের অসহায়-দরিদ্র মানুষের পাশে থেকে সর্বস্তরের মানুষের ভালোবাসা কুড়াচ্ছেন তিনি। পাশাপাশি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জয়ী হতে এবং দুঃস্থ মানুষ ও নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে তিনি সকল জনসাধারণের সার্বিক সহযোগিতা, দোয়া এবং সমর্থন কামনা করেছেন।
সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জানা যায়, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বার পদপ্রার্থী আফজাল হোসেনকে নিয়ে হাট-বাজারে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা ও আলোচনা। তবে সচেতন ভোটাররা তাকে নতুন প্রজন্মের আদর্শবান-যোগ্য ও সৎ-প্রার্থী হিসাবে মনে করছেন।
এরই মধ্যে বিভিন্ন মতবিনিময় সভা ছাড়াও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। দুঃখী ও অসহায় মানুষের পাশে থেকে সমাজসেবামূলক কাজ করতে চান আফজাল। মহামারিকালেও করোনার সংক্রমণ তাণ্ডবের মাঝেই দুস্থ ও গরীব মানুষের পাশে থেকে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন তিনি।
আবাসনের রিনা বেগম জানান, আফজাল এমন একজন তরুণ যিনি প্রকৃত সমাজসেবক। এলাকার গরীব অসহায় মানুষের জন্য নিবেদিত প্রাণ এক সমাজকর্মী তিনি। করোনা ভাইরাস এবং ঝড়-বৃষ্টিতে আমাদের খোঁজখবর ও সহযোগিতা করেছে। এরকম মানব দরদী মানুষ ইউনিয়নের নেতৃত্বে আসলে সমাজের চিত্রপট পাল্টে যাবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
এ ব্যাপারে মেম্বার পদপ্রার্থী মো. আফজাল হোসেন বলেন, আমি সমাজসেবার জন্য জনপ্রতিনিধি হতে চাই। মানুষের সেবা করাই হবে আমার অন্যতম প্রধান কাজ। মহান আল্লাহ-তায়ালা যদি আমাকে মেম্বার পদে নির্বাচিত করেন তাহলে একটি আধুনিক ও ডিজিটাল ওয়ার্ড হিসেবে রূপান্তর করব, ইনশাআল্লাহ।
উল্লেখ, কলাপাড়ার চাকামইয়া, টিয়াখালী ও নীলগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২৫ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ, ২৯ নভেম্বর বাছাই, ৬ ডিসেম্বর প্রত্যাহারের শেষ তারিখ এবং ২৩ ডিসেম্বর ভোট গ্রহনের তারিখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here