চরফ্যাশনে মাইকিং করে ফরমালিন যুক্ত আম বিক্রি, স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকি

0
29

কে হাসান সাজু,চরফ্যাশন

মেলামেলা আমের মেলা এই স্লোগানে বোরাক গাড়িতে মাইক বাজিয়ে প্রতারণা করে বিভিন্ন জাতের পঁচা আম ৩ কেজি ১০০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে ভোলা চরফ্যাসন উপজেলায় বিভিন্ন গ্রাম গঞ্জে শব্দ দূষণ করে পচা আম।এই আম ব্যবসায়ীরা হলেন চরফ্যাসন উপজেলার দুলার হাট থানা(১)নুরু মিয়া আম ব্যবসায়ী (২)মোঃ বসির আহাম্মেদ,শশীভূষণ (৩) মোঃ জসিম, শশীূষন থানা(৪) মোঃ আল আমিন তামিম বোডিং হাউজ শশীূভূষন(৫)মানিক মোল্লা।ভোলা শশিভূষণ পপি বোডিং হাউজ(২)মোঃনুরে আলম তাঁরা সহ ২০/২৫ টা বোরক গাড়ি এবং কিছু লোককে ভাড়া করে নিয়ে মাইক দিয়ে শব্দ দূষণ করে বিক্রি করেন ভোলা জেলায় পঁচা আম। এদিকে সরেজমিনে দেখা যায় ভোলা দক্ষিণ আইচা বেড়ীবাঁধ এক পথচারী ব্যবসায়ীকে জিজ্ঞেস করলে নাম না বলতে অনইচ্ছুক তিনি বলেন ৬/০৬/২০২০ইং দুপুর (১.৩৩)মিনিটের সময় আমি নামাজ পড়তে দাড়িয়েছি তখন হটাৎ করে আমার বাসার পাশে মাইকিং করে বলে মেলা মেলা আমের শব্দ শুনা যায়, আমি তখন নামাজের নিয়তে এতো শব্দ ছিলো যে আমার নামাজের নিয়ত ছেড়ে দিতে বাধ্য হলাম।দেশে যখন মহামারী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ঠিক তখনই শব্দ দূষণ এবং প্রতিদিন মাইকিং করে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতের পচা আম। অন্য দিকে এক ভুক্তভোগী মোঃজসিম বলেন আমি ৩ কেজি আম কিনছি একটা আম মিষ্টি হয় নাই তাঁর মধ্যে ৪ টা আম পচা এই ভাবে অসহায় মানুষকে তাঁরা প্রতিনিয়ত ঠকাচ্ছে। এবিষয়ে সংবাদ কর্মী আম ব্যবসায়ী নুর আলম কে জিজ্ঞেস করলে আপনাকে শব্দ দূষণ করে এবং মাইকিং করে পঁচা আম বিক্রি করার অনুমতি কে দিয়েছে সে বলে আমাদের আম বিক্রি করার অনুমতি আছে এবং আপনি প্রয়োজনে ভোলা চরফ্যাসন দুলার হাট বাজারের আড়তদের নুরু মিয়ার সাথে আলাপ করে নেন তাঁর সাথে মোবাইলে কথা বললে তিনি বলেন আমাদের আম বিক্রি করার অনুমতি আছে, তাকে জিজ্ঞেস করলাম পচা আম বিক্রি করার অনুমতি কে দিয়েছে সে কিছু না বলে ফোন কেটে দিলেন পরে ফোন দেওয়া হলে আর রিসিভ করে নাই। এ বিষয়ে ভোলা চরফ্যাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমিন এর সাথে আলাপ করলে তিনি বলেন শব্দ দূষণ করে কেউ আম বিক্রি করতে পারবে না যদি করে থাকে তাঁর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here