চরফ্যাসনে মহিলা মেম্বার ও চৌকিদারের চাদাঁবাজির অভিযোগে গনমিছিল

0
632

দ্বীপকন্ঠ নিউজ ডেস্কঃ

চরফ্যাশন আবদুল্যাহপুর ইউনিয়নে ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার ফাতেমা বেগম এবং তার স্বামী স্থানীয় ৫নং ওয়ার্ড চৌকিদারের  ছলচাতুরী ও চাঁদাবাজীর বিরুদ্ধে গন মিছিল করেন স্থানীয় জনগন। গত  ৮ মে শুক্রবার রাত ৯টায় স্থানীয় ফকিরহাট বাজারে এই মিছিল হয়। মিছিলের প্রতিপাদ্য হলো “ আর কোন দাবি নাই, চাঁদাবাজ মেম্বারের বিচার চাই। মহিলা মেম্বারের চাঁদাবাজীর টাকা ফেরৎ চাই ”। মিছিলে প্রায় ২ শতাধিক ভুক্তভোগী জনগন অংশ নেয়। মিছিলকারীরা স্থানীয় ফকিরহাট বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে বাজারে মাঝে সভায় মিলিত হয়। সভায় ৫ ওয়ার্ড মেম্বার কবির ফরাজী বলেন, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার ফাতেমা বেগম অসহায় জনগনকে সরকারী ত্রান সামগ্রী, ভিজিডি, বয়স্কভাতা, বিধবাভাতাা সহ বিভিন্ন বরাদ্দ পাইয়ে দেওয়ার আসায় অসহায় লোকজন থেকে বিভিন্ন কৌশলে  ২ হাজার,৩ হাজার, ৫ হাজার টাকা সহ বিভিন্ন রেটে চাঁদা তোলেন। ওই কাজ সে না করে নিজে পকেটস্থ হয়। নিরুপায় হয়ে ভুক্তভোগীরা  টাকা ফেরৎ পাইতে সমাজপতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে কোন সুফল পায়নি। তাই এই মিছিলে নেমে পড়েন তারা।  স্থানীয় মেম্বার সহ ভুক্তভোগীরা জানান, মহিলা মেম্বারের স্বামী দেলোয়ার হোসেন চৌকিদার কাগজ জালিয়াতি মাধ্যমে বয়স গোপন করে ৫০ বছর থেকে কমিয়ে ২৮ বছর বয়স নির্ধারন করে চৌকিদার পদে  নিয়োগ পান।

আর এই নিয়োগের সহযোগিতা করেন স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এ চৌকিদার পেশাকে পুজি করে স্বামী স্ত্রী মিলে এলাকায় চাঁদাবাজীতে মেতে উঠেন। বিভিন্ন কলাকৌশল অবলম্বন করে গ্রামের সহজ সরল অভাবি লোকজনের সরলতার সুযোগ নিয়ে চাঁদাবাজী করে দাফিয়ে বেড়ান। অনেকে জানান, নামে বেনামে লোকজনের নামে সরকারী বিভিন্ন সুবিধা নিয়ে সে নিজেই সেগুলো ভোগ করেন। চৌকিদার ও মেম্বারের বিভিন্ন অভিযোগের সংবাদে ভুক্তভোগী বিভিন্ন লোক অভিযোগ দিতে হিড়িক পড়ে। এ ঘটনার সত্যতা জানতে মহিলা মেম্বার ও তার স্বামীকে এলাকায় খুজে পাওয়া যায়নি। স্থানীয় চেয়ারম্যান জানান এমন কোন ঘটনা আমার জানা নাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here