লালমোহনে চুরির ঘটনা প্রতিবাদ করায় বাড়িঘরে হামলা । আহত – ৫

0
120

মোঃ নুরুল আমিন, লালমোহন

ভোলা লালমোহনে চুরির ঘটনা প্রতিবাদ করায় বাড়িঘরে হামলা ও লুটপাট করে ৩জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার কালমা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বয়াতি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, কালমা গ্রামের ২নং ওয়ার্ডের বয়াতি বাড়িতে ২৫ এপ্রিল রাতে পানজত আলী বয়াতির ঘরে সিঁধ কেটে চুরি করে চোর চক্র। উক্ত চোরাই মালসহ হানিফের ছেলে সোহাগ বয়াতি বাড়ির পাশের বাড়ি চর লক্ষী গ্রামের ৯নং ওয়ার্ডের মাল বাড়ির ফয়েজ মালের ছেলে রুবেলকে ধরে। এতে ফয়েজ মালরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। ২৮ এপ্রিল বিকাল অনুমান সাড়ে ৫টা থেকে ৬টার দিকে মাল বাড়ির রুবেল, ফয়েজ মাল, শফু মাল, বজলু মাল, খোকন, ইয়াসিন, রোশনাসহ আরো কয়েকজন মিলে সোহাগকে বেদম মারপিট করে এবং তারা বয়াতি বাড়িতে দা, ছেনি, লোহার রড, লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালিয়ে লুটপাট করে। এসময় বাধা দিলে পানজত আলীর মাথায় কুপিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে। পানজত আলীকে উদ্ধার করার জন্য এগিয়ে এলে বেগম জানের হাতে ও পায়ে কুপিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে এবং শাহানুর ও হামিদ আলীকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। সংঘবদ্ধ হামলাকারীরা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মালামাল নিয়ে যায়। মহিলাদের টানাহেঁচড়া করে শ্লীলতাহানি করে বলে ভুক্তভোগীরা জানান। গুরুতর আহত ও জখম হওয়াদের লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।
স্থানীয় লোকজন লোকজন জানান, ফয়েজ মাল কিছু দিন আগে চর লক্ষী ৯নং ওয়ার্ডের গোপাল মেম্বারের কাছে বিজিএফের কিছু কার্ড দাবী করে। ফয়েজ মালের অন্যায় আবদার রাখতে না পারার কারণে ডাওরী বাজারে গোপাল মেম্বারকে প্রকাশ্যে টানাহেঁচড়া ও মারপিট করে।
কিছু দিন আগে ফয়েজ মালের ছেলে রুবেল করিমুদ্দিন বাড়িতে চুরি করে। সে ঘটনার কোন বিচার পায়নি তারা। এক অসহায় গেরস্তের ছাগল চুরি করে ধরা পড়ে রুবেল পালিয়ে যায়। পরে যার ছাগল তাকে স্থানীয় গণ্যমান্যরা দিয়ে দেয়। রুবেলের উত্যক্ততার কারণে ডাওরী হাই স্কুলের কয়েকজন ছাত্রীর লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যায়। রুবেল ও ফয়েজ মালের অন্যায় অপরাধের প্রতিবাদ কেউ করলে তাকে খেসারত দিতে হয়। এদের উৎপাতে এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ। তারা অসহায় হয়ে পড়েছে। ভুক্তভোগীরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here