লালমোহনে সন্তানকে ফিরে পেতে অসহায় মায়ের সংবাদ সম্মেলন

0
317

জাহিদুল ইসলাম দুলাল, লালমোহন

কলেজ পড়–য়া ছেলেকে ফিরে পেতে সকলের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন আসহায় মোসাম্মৎ হাসিনা। স্থাণীয় থানা পুলিশ আদালত সহ বিভিন্ন যায়গায় ছেলের সন্ধানে ঘুরছেন তিনি। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪টার সময় লালমোহন প্রেসক্লাবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে ছেলের সন্ধান চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন হাসিনা। লিখিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন গত ১৫ ফেব্রæয়ারি ২০২১ ইং সোমবার সকালে আমার ছেলে রিয়াদুল হক টিটুকে চরফ্যাশন পৌরসভা ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী (তখন চরফ্যাশর পৌরসভার ভোট চলছিল) গিয়াস উদ্দিনের শালা এনজেল ও তার বন্ধু রনি, জাবেদ, শামিম ও আরিফ নির্বাচনের প্রচারণা করার জন্য নিয়ে যায়। ঐ দিন বিকালে আমার ছেলে রিয়াদুল হক টিটু বাড়ীতে না আসলে আমার বড় ছেলে ও স্বামী রাত ৯টা পর্যন্ত অপেক্ষা করার পর গিয়াস উদ্দিনের কাছে মোবাইলে ছেলের কথা জানতে চাইলে সে বলল আপনার ছেলে আমার বাসায় আছে। এরপর এনজেলের কাছে ফোন করলে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। সে ১৫ ফেব্রæয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত রিয়াদুল হক টিটু নিখোঁজ রয়েছে। ছেলে নিখোঁজের ঘটনায় চরফ্যাশন থানায় গত ১৭ ফেব্রæয়ারি মামলা করার জন্য গেলে ওসির পরামর্শে মামলা না করে তিনি জিডি করতে বলেন। জিডি নং-৬৯৪/২১ তারিখ ১৭/০২/২০২১ ইং। পরে ডিজির কপি দুলারহাট থানায় জমা দেই। চরফ্যাশন ও দুলারহাট থানা আশার ছেলের ব্যাপারে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় নিরুপায় হয়ে ২৮ আগস্ট ভোলা জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে গত মামলা দায়ের করি। মামলায় ৬ জনকে আসামী করা হয় এবং এনজেলকে ১নং আসামী করি। আদালতে মামলা হওয়ার পর থেকে আসামীগণ আমাদেরকে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে চলছে। আসামীরা এতই প্রভাবশালী যে তারা প্রকাশ্যে চলাফেরা করলেও পুলিশ তাদেরকে ধরছে না।
মোসাম্মৎ হাসিনা কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন দীর্ঘ প্রায় ৭ মাস হয়ে গেলেও আমার ছেলের কোন খবর কেহ দিতে পারেনাই। আমার ছেলেকে যদি তারা মেরে ফেলা হয় তাহলে আমার ছেলের মৃত লাশটা অন্তত আমি চাই। আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাবী জানাচ্ছি আমি ছেলেকে ফেরত চাই, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা যেন দ্রæত এর সমাধান প্রদান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here