1. admin@dipkanthonews24.com : admin :
কলাপাড়ায় নির্বাচন বানচালের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী - দ্বীপকন্ঠ নিউজ ২৪
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন

কলাপাড়ায় নির্বাচন বানচালের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী

এস এম আলমগীর হোসেন, কলাপাড়া
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৮ বার পঠিত
এস এম আলমগীর হোসেন, কলাপাড়া
 কলাপাড়া উপজেলা ধানখালী ইউনিয়নের ওয়ার্ড বিভাজনের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে আগামী ইউপি নির্বাচন বানচালের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে স্থানীয় জনগন। বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৭ টায় ধানখালী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ছৈইলাবুনিয়ার আনন্দ বাজার নামক স্থানে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদ্বয় তাদের ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ওয়ার্ড বিভাজনের আবেদন করেন। এতে ওই ইউনিয়নের আগামী নির্বাচন বানচালের সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় সচেতন মহল।
জানা যায়, কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২০২৩ সালের মার্চে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু নির্বাচন বানচাল করতে ওই ইউনিয়নের ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ড সম্পূর্ন বিলুপ্ত ও ২,৪,৬ নং ওয়ার্ড ৫০% বিলুপ্ত হওয়ার মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে ওয়ার্ডগুলো বিভাজন করার লক্ষে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর পটুয়াখালীর উপ-পরিচালক বরাবর আবেদন করেন ইউনিয়ন পরিষদ। গত ২৪ আগষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ তালুকদার এ আবদেন করেন। ওই আবেদনে উল্লেখ করা হয় ৭,৮,৯ এর কৃষি জমি সহ সকল স্থাপনা এবং ২,৪, ৬ নং ওয়ার্ডের জমি ঘর আংশিক অধিগ্রহন করা হয়েছে। অধিগ্রহনকৃত গ্রামের সকল অধিবাসীকে সরকারী আবাসনে অন্যত্র পুর্নবাসিত করা হয়েছে। এসব ভুল্য তথ্য দিয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অফিসে আবেদন করায় ফুসে ওঠেন স্থানীয় জনগন। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে আনন্দ বাজার এলাকায় প্রতিবাদ সভা করেন স্থানীয় জনগন।
এসময় বক্তব্য রাখেন এসময় বক্তব্য রাখেন ধানখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহাজাদ পারভেজ টিনু মৃধা, সাধারন সম্পাদক জাকির মৃধা, মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রব, ধানখালী ইউনিয়ন ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি দলিল উদ্দিন মাতবর ও ৪ নং ওয়ার্ড বিএনপির স়ভাপতি আবুল হাওলাদার।
ধানখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল রব মৃধার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ধানখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আলাউদ্দীন মৃধা,যুগ্নসাধারন সম্পাদক মোঃ আনিসুর রহমান, সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন মৃধা, ইসলামী আন্দোলন ধানখালী ইউনিয়নের মোঃ দলিল উদ্দিন, জমাইতে হিযবুল্লাহ ধানখালী ইউনিয়ন সভাপতি মোঃ লতিফ গাজী, ওয়ার্ড বিএনপির সভিপতি মোঃ হাফিজুর রহমান, ধানখালী ইউনিয়ন জাতীয়তাবাদী যুবদল নেতা হাফিজুর রহমান পিন্টু গাজী, পটুয়াখালী জেলা ছাত্রদলের নেতা রাসেল মাতুব্বর মুছা, সমাজসেবক রায়হান প্যাদা, শাহিন মৃধা, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভিপতি স্বজন মিয়া, ধানখালী স্বপ্নের ঠিকানার সভাপতি সালেহ হাওলাদার প্রমুখ। সভাটি পরিচালনা করেন ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ বাইুতুল ইসলাম দোলন।
এসময় দলমত নির্বিশেষে সকল শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা বলেন, চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদে রেজুলেশন করা আবেদনে উল্লেখ করেছেন জমি অধিগ্রহনের ফলে ৩ টা ওয়ার্ড পুরোপুরি বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এছাড়া ৩ টা ওয়ার্ড আংশিক বিলুপ্ত হয়েছে। মূলত এসব ওয়ার্ড বিলুপ্ত হয়নি। এসব ওয়ার্ডে এখনো ভোট কেন্দ্র রয়েছে। বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জমি অধিগ্রহনের পর এসব এলাকার মানুষ সংসদ নির্বাচন ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহনের মাধ্যমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। তারা বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করে আরো বলেন, ৭ নং ওয়ার্ডে এখনও কোন লোক স্থানাস্তরিত হয়নি।
৮ নং ওয়ার্ডে যে কয়টি ঘড় উচ্ছেদ হয়েছে তা ওই ওয়ার্ডেই রয়েছে। ৯ নং ওয়ার্ডের উচ্ছেদকৃত লোক স্থানীয় স্বপ্নের ঠিকানায় স্থানান্তরিত হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য যারা উচ্ছেদ হয়েছে সকলে ইউনিয়নের মধ্যেই রয়েছে। মূলত ওয়ার্ড বিভাজনের মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে ভোট স্থগিত করার মাধ্যমে দীর্ঘসময় ক্ষমতা ধরে রাখার মিথ্যা পায়তারা করছে বর্তমান চেয়ারম্যান এমনটাই অভিযোগ করেন বক্তারা।
এবিষয়ে ধানখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রিয়াজ তালুকদার বলেন, নির্বাচন বানচাল করা আমার উদ্দেশ্য নয়। যথাসময়ে নির্বাচন হোক এটা আমিও চাই। তবে জমি অধিগ্রহনে যেসকল ভোটার স্থানান্তরিত হয়েছে তাদের বিষয়ে সঠিক সমাধান হওয়া জরুরি।

Please Share This Post in Your Social Media

এ জাতীয় আরও খবর