1. admin@dipkanthonews24.com : admin :
মনপুরায় মোবাইল কিনে না দেওয়ায় অভিমানে কলেজ ছাত্রের আতœহত্যা - দ্বীপকন্ঠ নিউজ ২৪
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৮:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে প্রবাসী কল্যাণ সংগঠনের ঈদ উপহার বিতরণ ঈদুল আযহা উপলক্ষে মাংস বিতরণ করেছেন তারুণ্যের প্রেরণা সংগঠন পাথরঘাটায় ৪২ মণ সামুদ্রিক মাছসহ আটক -১৩ কোস্ট ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারের মধ্যে নগদ সহায়তা প্রদান শেখ হাসিনার সরকার দেশের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন- এমপি শাওন কাঠালিয়ায় সাপের কামড়ে নারীর মৃত্যু বাউফলে ছাগল চোর আটক, এলাকাবাসীর গনধোলাই ‘লঞ্চে সন্তান প্রসব, মা-শিশুর আজীবন ভাড়া ফ্রি’ ভোলা জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ মাহবুব-উল-আলম- শ্রেষ্ঠ থানা লালমোহন লালমোহনে অটোরিকশার চাকায় পৃষ্ট হয়ে ৫ বছরের শিশু নিহত

মনপুরায় মোবাইল কিনে না দেওয়ায় অভিমানে কলেজ ছাত্রের আতœহত্যা

মোঃ ছালাহউদ্দিন,মনপুরা 
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৭৬ বার পঠিত
Spread the love

মোঃ ছালাহউদ্দিন,মনপুরা 

ভোলার মনপুরায় মোবাইল কিনে না দেওয়ায় বাবা-মা’র ওপর অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করে কলেজ ছাত্র মোঃ রাব্বি।

সোমবার ভোর ৬ টায় উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সালাউদ্দিনের বাড়ি সংলগ্ন পুকুর পাড়ে গাছের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে সকাল ১০ টায় লাশের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা জেলা হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে পুলিশ।
এর আগে মনপুরা থানায় একটি ইউডি মামলা হয় বলে নিশ্চিত করেন মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদ আহমেদ। যার মামলা নং- ৫।

অভিমানে আতœহত্যা করা কলেজ ছাত্রটি হলেন, উপজেলার সাকুচিয়া আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র ও উপজেলা দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ওমান প্রবাসী মোঃ সালউদ্দিনের ছেলে মোঃ রাব্বি (১৮)।

জানা গেছে, রোববার রাতে কলেজ ছাত্র রাব্বি মোবাইল ফোন কিনে দেওয়ার জন্য মায়ের কাছে বায়না করে। ওই ছাত্রের মা মোবাইল কিনে দিতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে মা নিজের মোবাইল ফোনে ওই ছাত্রের বাবা ওমান প্রবাসী সালাউদ্দিনকে ফোন করে বিষয়টি অবহিত করে। পরে মা’র মোবাইল ফোনে ওমান প্রবাসী বাবা ওই ছাত্রকে রাগারাগি করে। পরে ওই ছাত্র রোববার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে অভিমান করে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। পরে ছেলেকে খুঁজতে বের হয় মা সহ প্রতিবেশীরা। একপর্যায়ে খোঁজাখুজির পর রাত দেড় টায় বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে গাছের সাথে ওড়না পেছিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় রাব্বিকে দেখতে পায়। পরে স্থানীয় চৌকিদার পুলিশেকে জানালে ভোর ৬ টায় পুলিশ ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে লাশের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা জেলা হসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে পুলিশ।

এই ব্যাপারে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদ আহমেদ জানান, গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় কলেজ ছাত্রে লাশ উদ্ধার করে সরেতহাল রির্পোট শেষে ময়না তদন্তের জন্য ভোলা হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় একটি ইউডি মামলা করা হয়। ময়নাতদন্তের ওপর ভিত্তি করে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তিনি আরও জনান,পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে পাওয়া যায়, কলেজ ছাত্র রাব্বিকে মোবাইল ফোন কিনে না দেওয়ায় বাবা-মা’র ওপর অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!