1. admin@dipkanthonews24.com : admin :
পটুয়াখালীতেও শিশুর দেহে মিলছে মাত্রাতিরিক্ত সিসা - দ্বীপকন্ঠ নিউজ ২৪
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ১০:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মা রান্নার কাজে ব্যস্ত, ঘরে বিদ্যুৎষ্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল একমাত্র সন্তানের লালমোহনে দুদকের উদ্যোগে দুর্র্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত দুমকী উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলা-পাল্টা হামলা বাউফলের ধুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় অধ্যক্ষর বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ইমতিয়াজ আহমেদ বাবুলকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মনোনয়ন প্রদান দুমকিতে ঘোড়া মার্কার তিন কর্মীকে মারধরের অভিযাগ লালমোহনে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে হামলা, আহত-২ লালমোহনে জোরপূর্বক জমি দখল পরবর্তী সন্ত্রাসী হামলায় আহত-৫ কলাপাড়ায় স্ত্রী কর্তৃক প্রবাসী স্বামীর টাকা আত্মসাতের অভিযোগ লালমোহনের আট ব্যক্তিকে হজ্জে পাঠানোর নামে হাজী কামালের বেপরোয়া অর্থ বানিজ্যর অভিযোগ

পটুয়াখালীতেও শিশুর দেহে মিলছে মাত্রাতিরিক্ত সিসা

দ্বীপকন্ঠ নিউজ ডেস্ক:
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৫ মে, ২০২৩
  • ৭২ বার পঠিত
Spread the love

পটুয়াখালীতেও শিশুর দেহে মিলছে মাত্রাতিরিক্ত সিসা। এমন তথ্যই বেরিয়ে এসেছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ইউনিসেফের উদ্যোগে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) গবেষণায়।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) সকালে পটুয়াখালী সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে সিসা দূষণ প্রতিরোধে স্থানীয় নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে অবহিতকরণ ও জনসম্পৃক্ততা বিষয়ক কর্মশালায় এ তথ্য জানানো হয়।

সভায় ইউনিসেফ প্রতিনিধি জানান, পটুয়াখালী সদর উপজেলার কালিকাপুর এলাকায় ব্যাটারি পুনরায় ব্যবহার করা হয় এমন দোকানে কর্মরত ও এর আশপাশের শিশুদের রক্তের নমুনা এবং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের পচা কোরালিয়া এলাকার মোট ২৪৮ জন শিশুর রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে গবেষণা করা হয়।

বরিশাল ইউনিসেফ অফিসের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আহসানুল ইসলাম জানান, পটুয়াখালীর ৪৬ শতাংশ শিশুর শরীরে মাত্রাতিরিক্ত সিসার উপস্থিত পাওয়া গেছে। দেশের চার জেলায় শিশুদের রক্তে সিসার সক্রিয় উপস্থিতি মিলেছে। রক্তে সিসার উপস্থিতি থাকা শিশুদের মধ্যে ৬৫ শতাংশের রক্তে এর পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত, যারা উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।

পটুয়াখালী, টাঙ্গাইল, খুলনা ও সিলেট এ চার জেলার শিশুদের ওপর গবেষণাটি পরিচালিত হয়েছে। পরীক্ষার আওতায় আসা ৯৮০ শিশুর সবার রক্তে সিসা মিলেছে। এর মধ্যে ৬৫ শতাংশ শিশুরই রক্তে সিসার মাত্রা যুক্তরাষ্ট্রের সিডিসি নির্ধারিত মাত্রা ৩ দশমিক ৫ মাইক্রোগ্রামের বেশি। এর মধ্যে ২৪ মাস থেকে ৪৮ মাস বয়সী শিশুদের শতভাগের শরীরেই সিসার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

‘শিশুদের জন্য সুস্থ জীবন বিনির্মাণে সিসা দূষণমুক্ত পরিবেশ আমাদের অঙ্গীকার’ স্লোগানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ইউনিসেফ বাংলাদেশের সহযোগিতায় কর্মশালার আয়োজন করে সিভিল সার্জন অফিস।

সিভিল সার্জন ডা. এস এম কবির হাসানের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক শিশু বিশেষজ্ঞ ও আফ্রিকার নাগরিক প্রিসিলা, ইউনিসেফ বরিশালের প্রধান আনোয়ার হোসেন, পটুয়াখালী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট গোলাম সরোয়ার, পটুয়াখালী সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দিলরুবা ইয়াসমিন লিজা, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মুজিবুর রহমানসহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, শিক্ষক, স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক, স্বেচ্ছাসেবকরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে মানবদেহে সিসা দূষণ দিন দিন বাড়ছে। সিসা দূষণের উৎস যেমন হলুদ, রং, পেট্রোল, সিসা-অ্যাসিড ব্যাটারি ইত্যাদি নিয়ন্ত্রণ করে সিসা দূষণ কমাতে হবে। পৃথক গবেষণার মাধ্যমে সিসা প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।

কর্মশালায় সিসা দূষণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা, শিক্ষা, স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধি ও তরুণ সংগঠনের প্রতিনিধিরা নিজস্ব কর্মপরিকল্পনা উপস্থাপন করেন। পরে সিসা দূষণ প্রতিরোধে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার করে গণস্বাক্ষর করেন অংশগ্রহণকারী ও অতিথিরা।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!