1. admin@dipkanthonews24.com : admin :
পুলিশি প্রভাবে তাজ হোটেলের মালিক কর্তৃক স্যানিটারি দোকান দখলের অভিযোগ - দ্বীপকন্ঠ নিউজ ২৪
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ১০:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মা রান্নার কাজে ব্যস্ত, ঘরে বিদ্যুৎষ্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল একমাত্র সন্তানের লালমোহনে দুদকের উদ্যোগে দুর্র্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত দুমকী উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলা-পাল্টা হামলা বাউফলের ধুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় অধ্যক্ষর বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ইমতিয়াজ আহমেদ বাবুলকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মনোনয়ন প্রদান দুমকিতে ঘোড়া মার্কার তিন কর্মীকে মারধরের অভিযাগ লালমোহনে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে হামলা, আহত-২ লালমোহনে জোরপূর্বক জমি দখল পরবর্তী সন্ত্রাসী হামলায় আহত-৫ কলাপাড়ায় স্ত্রী কর্তৃক প্রবাসী স্বামীর টাকা আত্মসাতের অভিযোগ লালমোহনের আট ব্যক্তিকে হজ্জে পাঠানোর নামে হাজী কামালের বেপরোয়া অর্থ বানিজ্যর অভিযোগ

পুলিশি প্রভাবে তাজ হোটেলের মালিক কর্তৃক স্যানিটারি দোকান দখলের অভিযোগ

মোঃ সানাউল্লাহ, বরগুনা 
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৫ জুন, ২০২৩
  • ৮৭ বার পঠিত
Spread the love

মোঃ সানাউল্লাহ, বরগুনা 

বরগুনায় পুলিশি প্রভাব খাটিয়ে ক্রয়কৃত জমিতে  করা স্যানিটারি দোকান ঘরে হামলা ও জোরপূর্বক মালামাল ফেলে দিয়ে দোকান দখলে নেওয়ার অভিযোগ উঠছে প্রভাবশালী এক হোটেল ব্যবসায়ী গ্রুপের বিরুদ্ধে।
এ ঘটনার বিচার দাবি করে রবিবার (২৫ জুন) দুপুরে বরগুনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী দোকানী জাফর হোসেন ও তার ক্রয়কৃত জমির মালিক গোলাম রসুল।
এর আগে বুধবার (২১জুন) সন্ধ্যায় বরগুনার সদরের ঢলুয়া ইউনিয়নের রায়ভোগ চৌমুহনী নতুন বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
সংবাদ সম্মেলনে দোকান মালিক জাফর হোসেন অভিযোগ করেন, আমি রায়ভোগ চৌমুহনী নতুুন বাজারে পাঁচ বছর আগে গোলাম রসুল ও মুস্তাফিজুর রহমানের কাছ থেকে ওই জমি ক্রয় করি। তার তিন বছর পর সেখানে একটি টিনসেট বিল্ডিং দোকান ঘর উত্তোলন করি। বুধবার সন্ধ্যয় আমি দোকানের বাইরে থাকাকালে স্থানীয় প্রভাবশালী বাবুল, তাজ হোটেলের মালিক হারুন ও দুলাল সহ ১০/১২ জন লোক এসে আমার মিস্ত্রির কাজ বন্ধ করে তার মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। এরপর তাকে মারধর করে বের করে দিয়ে দোকানের মালামাল ভেঙে ফেলে দেয়। খবর পেয়ে আমি ৯৯৯ এ ফোন দিলে বরগুনা সদর থানার পুলিশ এসে উভয় পক্ষকে দোকান থেকে বের করে চাবি নিয়ে দোকানটি তালাবদ্ধ করে রেখে যায়। আমি এ ঘটনার সঠিক বিচার চাই।
সংবাদ সম্মেলনে দোকান মালিক জাফর হোসেনের ক্রয়কৃত জমির মালিক মো. গোলাম রসুল বলেন, পাঁচ বছর আগে আমরা ওই জমি দোকান মালিক জাফর হোসেনের কাছে বিক্রি করেছি। তিন বছর যাবত তিনি সেখানে স্যানিটারি ব্যবসা করে আসছেন। হঠাৎ করে বাবুল, হারুন ও দুলালরা লোকজন নিয়ে এসে সন্ত্রাসী হামলা করে। তারা তাদের ভাগ্নে পিবিআইর এক এসপির প্রভাব খাটিয়ে এমনটা করছে। তাদের কালো টাকা ও প্রভাবে স্থানীয় পুলিশ তাদের এই অনৈতিক কাজে সাহায্য করতে পারে না। এর সঠিক বিচার হওয়া উচিত।
এ বিষয় অভিযুক্তদের মধ্যে বরগুনার তাজ হোটেলের মালিক মো. হারুন বলেন, আমরা জোরপূর্বক কোন দোকান দখল করিনি। কোন প্রভাবও খাটাইনি। ওই জমি আমাদের তাই সেখানে গিয়েছি এবং এ নিয়ে আমরা আদালতে মামলাও করেছি।
বরগুনা সদর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহমেদ বলেন,  সহিংসতার শঙ্কায় ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ  উভয়পক্ষকে দোকান থেকে সরিয়ে দিয়ে চাবি নিয়েছে। কাউকে জোরপূর্বক দখলে সাহায্য করেনি।
বরগুনার পুলিশ সুপার (এসপি) আবদুস সালাম বলেন, এ বিষয় আমি কিছুই জানি না। খোঁজ খবর নিয়ে দেখছি। আর আদালতে মামলা হলে সেটি আদালত বুঝবে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!