1. admin@dipkanthonews24.com : admin :
লালমোহনে স্ত্রী নির্যাতনের মামলায় জেল হাজতে পল্লী চিকিৎসক - দ্বীপকন্ঠ নিউজ ২৪
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০১:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দ্বাদশ জাতীয় সংসদের পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১ম বৈঠক অনুষ্ঠিত দৌলতখানে যুব রেড ক্রিসেন্টে দলনেতা মাশরাফি উপ-নেতা ইমতিয়াজ ও রহিমা লালমোহনে পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন প্রচারণায় চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ মো: আবু ইউসুফ লালমোহনে ঔষধ ব্যবসায়ীদের সাথে জনসচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত ভোলায় ৬ বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে সিলগালা লালমোহনে এক কেজি গাঁজাসহ মাদক কারবারি আটক লালমোহনে পাঁচ অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হসপিটাল সিলগালা চরফ্যাশনে জেনারেল ডায়াগনস্টিক এন্ড ডক্টরস্ চেম্বার সিলগালা॥ ২০ হাজার টাকা জরিমানা নলসিটিতে মাদ্রাসার জুনিয়র শিক্ষক পদে যোগদান করে অবৈধভাবে সিনিয়র পদে এম,পি,ও ভুক্ত বোরহানউদ্দিনে পুলিশ সপ্তাহ-২০২৪ উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

লালমোহনে স্ত্রী নির্যাতনের মামলায় জেল হাজতে পল্লী চিকিৎসক

জসিম জনি
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৬৫৮ বার পঠিত
Spread the love

জসিম জনি

ভোলার লালমোহনে যৌতুকের কারণে স্ত্রীকে নির্যাতনের মামলায় জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে এক পল্লী চিকিৎসককে। উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ নতুন বাজারের ঔষধের দোকানদার মো. রাছেল এর বিরুদ্ধে ৪ ফেব্রুয়ারী লালমোহন থানায় মামলা দায়ের করে তার স্ত্রী জানা-ই কাজরীলতা রত্না।

স্ত্রীকে নির্যাতন ও যৌতুক দাবী করায় রত্না এই মামলা করেন। মামলায় স্বামী রাছেলের বাবা মো. শাজাহান, ভাই রাফেজ সহ আরো দুজনকে বিবাদী করা হয়েছে। মামলার পর লালমোহন থানা পুলিশ রাছেলকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করলে জেল হাজতে পাঠানো হয়। এছাড়া আদালতে হাজির হতে গেলে রাছেলের বাবা ও ভাইকেও জেল হাজতে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, লালমোহন পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের মো. কাজল মিয়ার মেয়ে রত্নাকে ২০১৮ সালে লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের শাহজাহানের ছেলে রাছেলের সাথে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের পর তাদের রুহি নামে এক সন্তানও জন্ম নেয়। কিন্তু রাছেল পরবর্তীতে তার বাবা ও ছোট ভাইয়ের প্ররোচনায় রত্নার মায়ের নামে পৌরসভায় থাকা ভিটা রাছেলের নামে লিখে নিতে চাপ প্রয়োগ করে। এতে রাজী না হলে রত্নার উপর নির্যাতন শুরু হয়। রাছেল মোবাইল ফোনে বিভিন্ন নারীদের সাথে আপত্তীকর কথোপকথন চালিয়ে আসছে বলেও রত্না অভিযোগ করে। এসব কথোপকথনের স্ক্রীণ সর্ট ও বিভিন্ন নারীদের সাথে ছবি রাছেলের মোবাইল ফোন থেকে উদ্ধার করে রত্না।

যার কারণে রতœাকে গত ৩ বছর ধরে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে রাছেল। অভিযুক্ত রাছেল গরম পানি দিয়েও ঝলসে দেয় রতœার হাত। এই নির্যাতনে জখম হয়ে কয়েকদফা লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয় রতœা। নির্যাতনের কারণে রতœা শিশু কন্যাকে নিয়ে তার বাবার বাড়ি চলে আসলে রাছেল গত ৩ ফেব্রæয়ারি এসে ঝগড়া সৃস্টি করে। এক পর্যায়ে রতœাকে মারপিট করে রাছেল। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করে রতœা।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!