1. admin@dipkanthonews24.com : admin :
মনপুরার প্রতিবন্ধী ছালাউদ্দিনের জীবন কাটে দুঃখে কষ্টে - দ্বীপকন্ঠ নিউজ ২৪
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দ্বাদশ জাতীয় সংসদের পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১ম বৈঠক অনুষ্ঠিত দৌলতখানে যুব রেড ক্রিসেন্টে দলনেতা মাশরাফি উপ-নেতা ইমতিয়াজ ও রহিমা লালমোহনে পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন প্রচারণায় চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ মো: আবু ইউসুফ লালমোহনে ঔষধ ব্যবসায়ীদের সাথে জনসচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত ভোলায় ৬ বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে সিলগালা লালমোহনে এক কেজি গাঁজাসহ মাদক কারবারি আটক লালমোহনে পাঁচ অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হসপিটাল সিলগালা চরফ্যাশনে জেনারেল ডায়াগনস্টিক এন্ড ডক্টরস্ চেম্বার সিলগালা॥ ২০ হাজার টাকা জরিমানা নলসিটিতে মাদ্রাসার জুনিয়র শিক্ষক পদে যোগদান করে অবৈধভাবে সিনিয়র পদে এম,পি,ও ভুক্ত বোরহানউদ্দিনে পুলিশ সপ্তাহ-২০২৪ উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

মনপুরার প্রতিবন্ধী ছালাউদ্দিনের জীবন কাটে দুঃখে কষ্টে

মোঃ ছালাহউদ্দিন,মনপুরা
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১০৭ বার পঠিত
Spread the love

মোঃ ছালাহউদ্দিন,মনপুরা

ভোলার মনপুরা উপজেলার উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা প্রতিবন্ধী মোঃ ছালাউদ্দিন(৪৫) এর জীবন কাটে দুঃখে কষ্টে। মুজববর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘর এখনও তার ভাগ্যে জোটেনি। স্ত্রীসহ ৪ মেয়ে ১ ছেলে নিয়ে অন্যের বাড়ীতে কোনমতে দুচালা টিনের ঘর উঠিয়ে বসবাস করেন তিনি। আয় রোজকার করার মত তার কোন উপযুক্ত ছেলে বা মেয়ে নেই। প্রতিদিন হুইল চেয়ারে বসে মেয়ে খাদিজা (৮)কে নিয়ে মানুষের কাছে কাছে গিয়ে ভিক্ষা করে যা পান তা দিয়ে কোন মতে সংসার চালান তিনি। তার জীবন কাটে দুঃখ কষ্টের মধ্যে দিয়ে। পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে আছেন তিনি।

সোমবার সকালে হাজির হাট বাজারে ভিক্ষা করতে আসলে দেখা হয় প্রতিবন্ধী ছালাউদ্দিন এর সাথে। হাত বাড়িয়ে টাকা চাইলে কথা হয় তার সাথে। প্রতিবন্ধী ছালাউদ্দিন বলেন, ১২ বছর আগেও আমি ভালো ছিলাম। তখন আমি শ্রমিক হিসাবে মানুষের কাজ করতাম। বর্ষাকালে মেঘনায় জেলে হিসেবে নৌকা উঠতাম। নদীতে ইলিশ মাছ ধরতাম। হঠাৎ আমার অসুখ হলে তখন আমি টাকার অভাবে ভালো চিকিৎসা করাতে পারিনি। অভাব অনটনের সংসার চিকিৎসার অভাবে আমার বুকের ডান পাশ ও ডান পা অবস (প্যারালাইসি)হয়ে আয়। আজ আমি প্রতিবন্ধী। হাটতেও পারিনা। আমি কোন কাজও করতে পারিনা। পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে জীবন যাপন করছি। আমার কোন জায়গা জমি নেই। ভালো ঘরও নেই। আমি ৪নং ওয়ার্ডের আবু তাহের মেকারের বাড়ীতে কোন রকম একটি ঘর উঠিয়ে বসবাস করছি। আমার এক স্ত্রী ৪ মেয়ে ও ১ ছেলে। বড় মেয়ে বয়স ১৪ বছর । আমার আয় করার কোন উপযুক্ত ছেলে বা মেয়ে নেই। ভিক্ষা করে যা পায় তা দিয়ে কোন মতে সংসার চালায়। আমার একটি ঘর দরকার। প্রধানমন্ত্রী অনেক ঘর মানুষকে দিচ্ছে । আমি এখনও ঘর পাইনি। আমি প্রতিবন্ধী ভাতা পায়। আমাকে থাকার জন্য একটি ঘর দিয়েন। রাস্তার পাশে ঘরটা দিয়েন। এভাবে মনের আকুতি জানিয়েছেন ইত্তেফাক সংবাদদাতার কাছে প্রতিবন্ধী ছালাউদ্দিন। তিনি সরকারের পাশাপাশি দেশের ভিত্ববানদের তার পরিবারের পাশে সহযোগীতার হাত বাড়ানোর জন্য অনুরোধ করেন।

অসহায় প্রতিবন্ধী বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) জহিরুল ইসলাম বলেন, আপনার মাধ্যমে অসহায় প্রতিবন্ধীর বিষয় অবগত হয়েছি। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘর তার জন্য বরাদ্ধ দিব। আমি খোঁজ খবর নিচ্ছি। তার জন্য একটি হুইল চেয়ার ও প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর তাকে উপহার দিব।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!